পূর্ব বিরোধের জের ধরে নেশাদ্রব্য পান করিয়ে হত্যা করা হয় অটো রিকশাচালক আপনকে

রিপোর্ট নারায়ণগঞ্জ ২৪ : সদর থানাধীন গোগনগর ইউনিয়নের সৈয়দপুর এলাকার অটোরিকশা চালক আপন হত্যার ৪৮ ঘন্টার মধ্যে মূল রহস্য উদ্ঘাটন ৫ আসামী গ্রেফতার এবং লুণ্ঠিত মালামাল উদ্ধার করেছে নারায়ণগঞ্জ সদর মডেল থানা পুলিশ।

বৃহস্পতিবার (২৮ এপ্রিল) দুপুরে নারায়ণগঞ্জ সদর মডেল থানায় আযোজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানান, জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ক) সার্কেল নাজমুল হাসান।

সংবাদ সম্মেলনে তিনি আরো জানান, নারায়ণগঞ্জ সদর মডেল থানাধীন সৈয়দপুর এলকার তিন বন্ধু নাহিদ ও মোঃ আমির হোসেন,আমিন এবং মোঃ আপন। তিনজনই পেশায় অটো চালক। নাহিদ এবং আপন এই দুই বন্ধু এলাকার স্থানীয় একজন মেয়েকে পছন্দ করতো। সম্প্রতি এই বিষয়কে কে›ন্দ্র করে তাদের মধ্যে মনোমালিনা ও বিরোধের সূত্রপাত ঘটে । এই পরিস্থিতিতে তাদের আরেক বন্ধু আমির হোসেন ও আমিন, নাহিদকে আপনের বিরুদ্ধে প্ররোচিত করে এবং দুইজনে মিলে আপনকে হত্যা পূর্বক অটো ছিনতাইয়ের জঘন্য পরিকল্পনা করে। এমনকি আপনকে হত্যা করে ছিনতাইকৃত অটো বিক্রি করার চোরাই চক্রের সন্ধান করে এবং তাদের সাথে চুক্তি করে। তারই পরিকল্পনা অনুযায়ী সুযোগ খুঁজতে থাকে । ঘটনার দিন ২৫ এপ্রিল তারিখ রাত অনুমান সোযা ৯ টার দিকে পূর্ব পরিকল্পনা অনুযায়ী নারায়ণগঞ্জ সদর মডেল থানাধীন চর সৈয়দপুর কাঠপট্টি সাকিনস্থ রেইনবো ড্রাইং এর পেছনে নাহিদ ও আমির হোসন (২) আমিন, নেশাজাতীয় দ্রব্য নিয়ে আপনের জন্য অপেক্ষা করিত থাকে। আপন আমির হোসেন ওরফে আমিন এর মোবাইল ফোনে ফোন করে নাহিদ ও আমির হোসেন আমিনের নিকট যায়। তারা একত্রে নেশাজাতীয় দ্রব্য সেবন করিয়া নাহিদ ও আমির হোসেন আমির আপনকে ঝাপটাইয়া ধরে গলা চাপিয়া রশি দিয়া শ্বাসরোধ করিয়া হত্যা করে। পরবর্তীতে অটোগাড়ী ছিনতাই করিয়া নিয়া পূর্বের চুক্তি অনুযায়ী বিল্লাল ও ইসমাইল এবং সাইদুলের নিকট ২৫,০০০/-টাকায় বিক্রয় করে। নগদ ২০,০০০/-টাকা নিয় চলিয়া আসে।

এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন, নারায়ণগঞ্জ সদর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ শাহজামান,পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) আজিজ হাওলাদার।
অত্র মামলায় এজাহারনামীয় আসামীরা হলেন, ১। নাহিদ (২২), পিতা-মাহমুদ হোসেন ওরফে গেদা, ২। মোঃ আমির (২৩), পিতা-মোঃ ফালান, উভয় সাং-সৈয়দপুর, ফকিরবাড়ী থানা জেলা-নারায়ণগঞ্জ দ্বয়কে গ্রেফতার করিতে সক্ষম হই। তাহাদের জিজ্ঞাসাবাদে তাহারা গুরুত্বপূর্ণ তথ্যের ভিত্তিতে তাহাদের নিকট হইতে অটো বিক্রয়ের ২নং আসামীর নিকট হইতে নগদ ৭,৬০০/-টাকা এবং ১নং আসামীর নিকট হইতে নগদ ৪,০০০/-টাকা উদ্ধার করি । তাহাদের তথ্য দেওয়ার মতে কুমিল্লা জেলার হোমনা থানা এলাকা হইতে তাহাদের সহযোগী অন্যান্য আসামী ১। মোঃ ইসমাইল খন্দকার (২৩) পিতা-আব্দুল করিম, ২। মোঃ বিল্লাল মিয়া (২২), পিতা-মোঃ হেলাল মিয়া, উভয় সাং-রামকৃষ্ণপুর, থানা- হোমনা, জেলা-কুমিল্লা, ৩ মোঃ সাইদুল (২৩), পিতা-মৃত মানিক মিয়া, স্থায়ী সাং-শ্রীনগর, থানা- হোমনা, জেলা-কুমিল্লাদেরকে গ্রেফতার ও তাহাদের নিকট হইতে ছিনতাইকত অটো উদ্ধার করিতে সক্ষম হই।