শীতলক্ষ্যায় লঞ্চ ডুবির ঘটনায় ৬ জনের লাশ উদ্ধার

শীতলক্ষ্যা নদীতে লঞ্চ ডুবি

রিপোর্ট নারায়ণগঞ্জ ২৪ : নারায়ণগঞ্জের শীতলক্ষ্যা নদীতে লঞ্চ ডুবির ঘটনা ঘটেছে।

রবিবার (২০ মার্চ) তৃতীয় শীতলক্ষ্যা সেতুর সামনে এ লঞ্চ ডুবির ঘটনা ঘটে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, দুপুর দুই টার দিকে নারায়ণগঞ্জ থেকে এল.এম আফসার উদ্দিন নামে একটি যাত্রীবাহী লঞ্চ মুন্সিগঞ্জের উদ্দেশ্যে রওনা করে। লঞ্চটি শীতলক্ষ্যা তৃতীয় সেতুর সামনে আসলে তার পিছনে থাকা সিটি গ্রুপের এমভি সিটি-৯ লঞ্চটিকে পিছন থেকে ধাক্কা দেয়। এতে লঞ্চে থাকা প্রায় ৬০ থেকে ৭০ জন যাত্রী সহ লঞ্চটি ডুবে যায়।

এ সময় লঞ্চ থেকে সৈয়দ আহমেদ (২৩) ও মিজান (৪৪) নদীর পশ্চিম পাড়ে এবং বাকী কয়েকজন নদীর পূর্ব পাড়ে উঠতে সক্ষম হয়।

সৈয়দ আহমেদ ও মিজান জানায়, জাহাজটি লঞ্চের পিছন দিক থেকে ধাক্কা দিয়ে সামনের দিকে নিতে থাকে। এর ফলে সকল যাত্রী সহ লঞ্চটি ডুবে যায়।
খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের লোকজন লঞ্চ উদ্ধারে অভিযান চালিয়ে যাচ্ছে। ডুবুরি দল ৬ জনের লাশ উদ্ধার করতে সক্ষম হয়েছে।
লঞ্চ ডুবির খবর পেয়ে স্বজনরা শীতলক্ষ্যার পাড়ে এসে ভীড় জমিয়েছে। কান্নায় ভারী হয়ে গেছে শীতলক্ষ্যার পাড়।

অপরদিকে শীতলক্ষ্যায় যাত্রীবাহী লঞ্চ এম এল আফছার উদ্দিন ডুবির ঘটনায় ঘাতক জাহাজ এমভি রূপসীকে আটক করেছে নৌ পুলিশ। রোববার (২০ মার্চ) সন্ধ্যায় জাহাজটি মুন্সীগঞ্জের হোসেন দি ডকইয়ার্ড থেকে আটক করা হয়। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন নারায়ণগঞ্জ নৌ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মনিরুজ্জামান মনির।

সর্বশেষ নারায়ণগঞ্জে শীতলক্ষ্যা নদীতে লাইটার জাহাজের ধাক্কায় ডুবে যাওয়া যাত্রীবাহী লঞ্চ এম এল আফসার উদ্দিন উদ্ধার করেছে বিআইডব্লিউটিএর উদ্ধারকারী জাহাজ প্রত্যয়। লঞ্চটি উদ্ধারের পর ভেতরে কোনো লাশ পাওয়া যায়নি।