আল-আমীন নগরে প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর জীবনমান উন্নয়ন প্রকল্পে দূর্নীতির অভিযোগ!

রিপোর্ট নারায়ণগঞ্জ ২৪ : নারায়ণগঞ্জের ১৮নং ওয়ার্ডের আল-আমীন নগরে প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর জীবনমান উন্নয়ন (এলআইইউপিসি) প্রকল্পে দূর্নীতির অভিযোগ উঠেছে!

বৃহস্পতিবার (২০ জানুয়ারী) সকালে সদর মডেল থানাধীন আল-আমীন নগর এলাকায় প্রকল্পের আওতাধীন সদস্যগণ এ অভিযোগ করেন।

এসময় ভূক্তভোগীরা জানায়, এলআইইউপিসি ও এনইউপিআরপি প্রকল্পের অধীনে নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের আল-আমীন নগর ও আশপাশের এলাকায় কয়েক শতাধিক মানুষকে সরকারী সহায়তা প্রদানের লক্ষ্যে সদস্য হিসেবে যুক্ত করা হয়। এজন্য সবাইকে একটি করে সদস্য কার্ড দেওয়া হয়। যাতে করে সরকারী সহায়তাগুলো সাধারণ মানুষের কাছে পৌছায়। তাই এলাকাগুলো ভাগ করে প্রতিটি এলাকায় সভাপতি ও সচিব দেওয়া হয়। আল-আমীন নগর সিডিসি-এর মধুমতী ক্লাস্টারের সভাপতি করা হয় হ্যাপি ও সচিব করা হয় পারভীনকে। সবই ঠিক ছিলো কিন্তু সমস্যার সৃষ্টি হয় তখন, যখন সরকারী সহায়তাগুলো বন্টনের সময় হয়। কারন আল-আমীন নগর সিডিসি-এর মধুমতী ক্লাস্টারের মাধ্যমে সদস্যদেরকে এসব সহায়তা প্রদানের সময় হ্যাপি ও পারভীন সদস্যদের কাছ থেকে বিভিন্ন পণ্য কম দিত মাসে ৩০টি ডিম দিলে সেখান থেকে ১০টি ডিম হ্যাপিকে দিতে হতো তার বাড়িতে গিয়ে। এবং অনেক সদস্যদের ব্যবসার টাকা অর্ধেক দিত। এ নিয়ে সদস্যরা ভয়ে মুখ খুলতোনা। কারন তারা দুজন সদস্যদেরকে বলতো, যদি এ ব্যাপারে কাউকে কিছু বলে তাহলে পরবর্তীতে কোন সহায়তা দেওয়া হবেনা।

এ বিষয়ে জানতে চেয়ে প্রকল্পের কর্মকর্তা আনোয়ারের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি সিটি করপোরেশনের কর্মকর্তাদের সাথে যোগাযোগ করতে বলেন। পরবর্তীতে কাউকে খুজে পাওয়া যায় নি।