বাংলাদেশকে অস্থীতিশীল করার জন্য কিছু দল ধর্মকে নিয়ে খেলা শুরু করেছে –ভিপি বাদল

রিপোর্ট নারায়ণগঞ্জ ২৪ : নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আবু হাসনাত মো. শহীদ বাদল বলেছেন, সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির দেশ এই বাংলাদেশ। এই বাংলাদেশে সকল ধর্মের মানুষ আমরা ভাই ভাই। হিন্দু-মুসলমানে কোনো ভেদাভেদ নাই। হিন্দুর হাত কাটলে যে রক্ত বের হবে, সেই রক্তই মুসলমানের শরীর থেকে বের হবে। ইসলাম ধর্ম অন্য ধর্মের উপাসনায় বাধা দিতে বলে নাই। এই নারায়ণগঞ্জে মসজিদ, মন্দির পাশাপাশি আছে। কবরস্থান, শ্মশানসহ চার ধর্মের মানুষের শেষ স্থান একসাথে। সারা বাংলাদেশে এই নারায়ণগঞ্জ জেলায় এটি বিরল।

মঙ্গলবার (১৯ অক্টোবর) বিকেলে শহরের ২নং রেলগেইট সংলগ্ন নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের কার্যালয়ের সামনে ‘সম্প্রতি ও শান্তির সমাবেশ’ এ তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি আরও বলেন, সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির সমাবেশ এটি। বাংলাদেশকে অস্থীতিশীল করার জন্য কিছু দল ধর্মকে নিয়ে খেলা শুরু করেছে। একাত্তরের সময় সেই নেজাম ই ইসলাম, জামাতে ইসলাম নামে দলগুলো পাকিস্তানি হানাদার বাহিনীকে সহযোগিতা করেছিল। তারা ধর্মের নামে নারায়ে তাকবির বলে পাকিস্তানিদের কাছে আমার মা-বোনদের তুলে দিয়েছিল। তারা এই বাংলাদেশ চায় নাই।’ যারা ধর্মীয় উসকানি দিয়ে বিভ্রান্ত সৃষ্টি করে রাষ্ট্রীয়ভাবে অশান্তি সৃষ্টি করতে চায় তাদের এই বাংলার মাটিতে থাকতে দেওয়া হবে না। ওরা স্বাধীনতার শত্রু।

সমাবেশে এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন, নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক সম্পাদক অ্যাড. নুরুল হুদা জেলা শ্রমিক লীগের আহ্বায়ক আব্দুল কাদির, সদস্যসচিব কামাল হোসেন, যুব শ্রমিক লীগের সাধারণ সম্পাদক মোক্তার হোসেন, বঙ্গবন্ধু সৈনিক লীগের সভাপতি জসিম উদ্দিন প্রমুখ।

সমাবেশ শেষে একটি বিক্ষোভ মিছিল নগরীর প্রধান সড়ক বঙ্গবন্ধু সড়ক ধরে চাষাঢ়ায় নারায়ণগঞ্জ কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে গিয়ে শেষ হয়।