আমি সর্বদা আল্লাহর উপর ভরসা করে চলি – শামীম ওসমান

রিপোর্ট নারায়ণগঞ্জ ২৪ : নারায়ণগঞ্জ শহরের চাষাড়ায় ২০০১ সালে জেলা আওয়ামী লীগ অফিসে বয়াভহ বোমা হামলায় হতাহতের ঘটনায় দায়ের করা মামলার সাক্ষী দিতে আদালতে উপস্থিত হয়েছেন নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সাংসদ একেএম শামীম ওসমান৷

সোমবার (৭ সেপ্টেম্বর) দুপুর পৌনে ২ টায় নারায়ণগঞ্জ জেলা ও দায়রা জজ আদালতে চত্বরে আসেন সাংসদ শামীম ওসমান৷

এ সময় সাংসদ শামীম ওসমান বলেন, আমলার আইও বলেন চন্দনশীল আমার পিএস। কিন্তুু চন্দনশীল আমার পিএস না রাজনৈতিক সহযোদ্ধা। আমি যেটা বলবো আর এটাই হলো স্বাক্ষী। কিন্তুু আমার স্বাক্ষর সাথে কাগজে কোন মিল নাই। আমি যা বলেছি আদালত আমার উপর সন্তষ্টু হয়েছেন এবং ওই আদালতের এডিশনাল পিপিকে পিটিশন করতে বলেছেন। এতো বড় বোমা হামলা হওয়ার পরেও আমি মরি নাই আর চন্দনশীলও মরে নাই। তাই তখনকার কর্মরত তারা আমার গানম্যানকে প্রত্যার করে নিয়েছিল। আমি আল্লাহর সর্বদা উপর ভরসা করে চলি। তাই আমার কোন গানম্যান প্রয়োজন হয় না। আমার গানম্যানের দরকারও নাই।

প্রসঙ্গত, ২০০১ সালে আওয়ামী লীগ সরকারের মেয়াদ শেষ হওয়ার প্রাক্কালে ১৬ জুন নারায়ণগঞ্জ শহরের চাষাঢায় আওয়ামী লীগ অফিসে বোমা হামলার ঘটনা ঘটে। ওই দিন রাত পৌনে আটটার দিকে তৎকালীন সাংসদ শামীম ওসমান তার কর্মীদের সঙ্গে রাজনৈতিক আলোচনায় ব্যস্ত ছিলেন। ঠিক সে সময়ই ঘটে বোমা হামলার ঘটনা। হামলায় ২০ নেতা কর্মী প্রাণ হারান। শামীম ওসমানসহ আহত হন অন্ত অর্ধশত নেতাকর্মী। পঙ্গগুত্ব বরণ করেন অনেকে। এ ঘটনায় তৎকালীন শহর আওয়ামী লীগের সভাপতি ও বর্তমান মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট খোকন সাহা বাদী হয়ে দুটি মামলা করেন। মামলার সাতবার তদন্ত কর্মকর্তা পরিবর্তন হয়। আওয়ামী লীগ টানা তিনবার রাষ্ট্রীয় ক্ষমতায় আসলেও এখন পর্যন্ত এ মামলার বিচার কার্য শেষ হয়নি।