জীবিত উদ্ধার হওয়া স্কুলছাত্রী জিসা মনিকে ধর্ষণ ও হত্যা মামলায় নৌকার মাঝির জামিন

রিপোর্ট নারায়ণগঞ্জ ২৪ : নারায়ণগঞ্জে স্কুলছাত্রী জিসা মনি অপহরণ, হত্যা, জীবিত উদ্ধার মামলায় গ্রেফতার হওয়া নৌকার মাঝি খলিলের (৩৬) জামিন আবেদন মঞ্জুর করেছেন আদালত৷

বুধবার (২ সেপ্টেম্বর) দুপুরে নারায়ণগঞ্জের জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক আনিসুর রহমান জামিন মঞ্জুর করেছেন৷

আসামিপক্ষের আইনজীবী অ্যাড. আবদুল লতিফ মিয়া জানান, মঙ্গলবার জামিন আবেদন করলে আদালত বুধবার জামিন শুনানির তারিখ দেন৷ পরে বুধবার দুপুরে জামিন শুনানি শেষে আদালত তার জামিন মঞ্জুর করেন৷

এর আগে গত ৪ জুলাই স্কুলছাত্রী জিসা মনি (১৫) নিখোঁজ হয়। এক মাস পর ৬ আগস্ট একই থানায় স্কুল ছাত্রীর বাবা অপহরণ মামলা করেন। মামলায় প্রধান আসামি করা হয় বন্দর উপজেলার বুরুন্ডি খলিলনগর এলাকার আমজাদ হোসেনের ছেলে আব্দুল্লাহ (২২) ও তার বন্ধু বুরুন্ডি পশ্চিমপাড়া এলাকার সামসুদ্দিনের ছেলে রকিব (১৯)। ওই দিনই তাদের গ্রেফতার করা হয়। একই ঘটনায় দুইদিন পর গ্রেফতার করা হয় বন্দরের একরামপুর ইস্পাহানি এলাকার বাসিন্দা নৌকার মাঝি খলিলকে (৩৬)।

পরবর্তীতে গত ৯ আগস্ট পুলিশ জানায়, স্কুলছাত্রীকে গণধর্ষণের পর হত্যা করে মরদেহ নদীতে ভাসিয়ে দেয় আসামিরা। তারা আদালতে ১৬৪ ধারায় এ ঘটনা স্বীকার করে জবানবন্দি দিয়েছে। অথচ ২৩ আগস্ট দুপুরে বন্দরের নবীগঞ্জ রেললাইন এলাকায় সুস্থ অবস্থায় পাওয়া যায় নিখোঁজ স্কুলছাত্রীকে। এ ঘটনায় চারদিকে তোলপাড় সৃষ্টি হয়। পুলিশের তদন্ত ও আদালতে দেওয়া জবানবন্দি প্রশ্নবিদ্ধ হয়। এ ঘটনায় মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এসআই শামীম আল মামুনকে প্রথমে প্রত্যাহার এবং পরে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়।