মাহবুব হত্যাকারীদের গ্রেফতার করা না হলে সারাদেশে নৌ-চলাচল বন্ধের হুশিয়ারী নৌযান শ্রমিকদের

রিপোর্ট নারায়ণগঞ্জ ২৪ : নারায়ণগঞ্জ শহরের ৫নং লঞ্চ টার্মিনাল ও রেল ষ্টেশন এলাকার চিহ্নিত সন্ত্রাসী এবং শীতলক্ষা নদীতে চলাচলকারী নৌ-যানে চাঁদাবাজী চক্রের হোতা সবুজ সিকদার, জাকির হোসেন চুন্নু ও কবির হোসেন গংদের দ্বারা নির্মম ভাবে হত্যার শিকার নৌ-যান শ্রমিক মাহাবুবুর রহমান ড্রাইভারের হত্যাকারীদের অবিলম্বে গ্রেফতার ও ফাঁসি চেয়ে বিচারের দাবিতে নগরীতে মানববন্ধন করেছেন নৌ-যান শ্রমিক মাহবুবুব ড্রাইভারের গ্রেফতার ও দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তির দাবি বাস্তবায়ন সংগ্রাম পরিষদ।

মঙ্গলবার (১৮ ফেব্রয়ারী) দুপুরে নারায়ণগঞ্জ প্রেসক্লাব মিলানায়তনের সামনে অনুষ্ঠিত হয় এ মানববন্ধন।

মানববন্ধনে এ সময় বক্তরা বলেন, নারায়ণগঞ্জের শীতলক্ষ্যা নদীতে নৌযান শ্রমিকদের কাছে এক ভয়ঙ্কর চাঁদাবাজ ও মূর্তমান আতঙ্কের নাম সবুজ শিকদার জাকির হোসেন চুন্নু ও কবির হোসেন গংরা। দীর্ঘদিন ধরে এই চক্রটি বিভিন্ন অপকর্ম করে আসলেও প্রশাসনের পক্ষ থেকে কোনো রকম ব্যবস্থা গ্রহণ করা হচ্ছে না। পাওনা টাকা চাওয়ার অপরাধে একজন সাধারণ শ্রমিককে পিটিয়ে হত্যা করার ঘটনাটি মধ্যযুগীয় বর্বরতাকেও হার মানিয়েছে। কি অন্যায় আর অপরাধ ছিল মাহাবুবুর রহমানের। কেন এক শিশু আজ পিতৃহারা,কেন একজন নারী বিধবা হলো তা আমরা জানতে চাই? ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের সহযোগী সংগঠন শ্রমিক লীগের নাম ভাঙ্গিয়ে দীর্ঘদিন ধরেই এই শীতলক্ষ্যা নদীতে চাঁদাবাজির রামরাজত্ব কায়েম করেছে এই সবুজ শিকদার ও তার বাহিনী।

তারা আরো বলেন, মাহবুবকে হত্যা করে খুনিরা এখন দিব্বি ঘুরে বেরাচ্ছেন। মাহবুব হত্যাকারীদের বিচার না করা হলে এবং অভিলম্বে তাদেরকে গ্রেফতার না করলে আমরা নৌ-যান শ্রমিকরা কেউ কাজে বের হবনা। আগামী ২৪ তারিখের পর যদি মাহবুব হত্যা কারীদের গ্রেফতার না করা হয় তাহলে সেদিন রাত ১২ টা ১ মিনিট থেকে সারাদেশে নৌ-চলাচল বন্ধ করে দেয়া হবে। অচল করে দেয়া হবে নদীপথ।

নিহতের স্ত্রী রাজিয়া তার স্বামী হত্যার বিচার দাবি করে বলেন, আমার সন্তানটি তার বাবা হারা হয়েছে। একজন মা তার ছেলেকে হারিয়ে, একজন ভাই তার ভাইকে হারিয়েছে, আমার স্বামীকে যারা হত্যা করেছে তাদের ফাঁসি দিতে হবে।

নৌযান শ্রমিক নেতা জাহাঙ্গীর আলমের সভাপতিত্বে উক্ত মানববন্ধনে প্রায় শতাধিক নৌ-যান শ্রমিক অংশগ্রহন করেন।