সংবাদ সম্মেলনের পরিপ্রেক্ষিতে জয়নাল আবেদীনের বিবৃতি

রিপোর্ট নারায়ণগঞ্জ ২৪ : গত শনিবার (১৪ সেপ্টেম্বর) বেলা ১২টায় নারায়ণগঞ্জ প্রেসক্লাবের হানিফ খান মিলনায়তনে নারায়ণগঞ্জ জেলা ট্রাক, কভার্ডভ্যান ও ট্যাংকলড়ি মালিক সমিতির ব্যানারে অনুষ্ঠিত সাংবাদিক সম্মেলনে নাসিক ১৪নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর শফিউদ্দিন প্রধান সাংবাদিকদের সম্মুখে আলহাজ¦ মোঃ জয়নাল আবেদীনের বিরুদ্ধে যে অভিযোগ তুলে ধরেন তার পরিপ্রেক্ষিতে গণমাধ্যমে বিবৃতি দিয়েছেন আলহাজ¦ মোঃ জয়নাল আবেদীন।

নিন্মে তা হুবুহু প্রকাশ করা হলো-তর্কিত সম্পত্তির মালিকানার সংক্ষিপ্ত বক্তব্য নিন্মরূপ (১) তর্কিত সম্পত্তির সি, এস মালিক ছিলেন খোয়াজ মন্ডল । খোয়জ মন্ডল সি,এস ৮১ নং খতিয়ানের ৯৯৪ শতাংশ সম্পত্তি তাহার সাত পুত্রের মধ্যে খোয়াজ মন্ডল তর্কিত ৯৪৩ নং দাগের ১০৫ শতাংশ সম্পত্তি সহ অন্যান্য সম্পত্তি প্রাপ্ত হয়। (২) এস,এ ১০১ নং খতিয়ানে এজমালিতে উক্ত মুল্লুক চাঁনের নাম লিপি হয়। উক্ত মুলুøক চাঁন মৃত্যুকালে কালচানকে এক পূত্র ও আতরজানকে এক কন্যা ওয়ারিশ রাখিয়া মৃত্যু বরন করেন। (৩) উল্লেখিত ভাবে কালাচান ও আতরজান পৈতৃক ওয়ারিশ সূত্রে তর্কিত সম্পত্তির মালিক ও ভোগ দখলকার নিয়ত হন ও রহেন। বিগত আর,এস জরিপে জরীপকারী কর্মকর্তা কর্মচারীগন মুল্লুক চানের পুত্র কালাচানকে তর্কিত সম্পত্তিতে ভোগদখলে বিদ্যমান পাইয়া কালাচনের নাম আর,এস ২২২ নং খতিয়ানে মালিকানার কলামে এবং দখল বিষয়ক মন্তব্যের কলামে কালাচানের নাম আর,এস ১২১০ নং ও ১১৭৪ নং দাগের মালিক ও ভোগ দখলকার হিসাবে লিপি বদ্ধ করেন। (৪) উল্লেখিত কালাচাঁন ও আতরজান নগদ টাকার পয়োজন হওয়ায় বিগত ২৮/০৮/১৯৭১ ইং তারিখে ২৯৪০ নং সাফ কবলা দলিল মূলে মৌলভী আঃ গফুর মোল্লা, মৌলভী সামছুল কহ মোল্লা, আলী আকবর সরদার ও আলী আশরাফ সরদারের বরাবের সাফ বিক্রয় করিয়া দখল বুঝাইয়া দিয়া নিঃস্বত্ববান হয় ( ৫)উল্লেখিত উপায়ে মৌলভী আঃ গফুর মোল্লাগং তর্কিত সম্পত্তিতে ক্রয় সূত্রে একচ্ছত্র মালিক ও ভোগ দখলকার নিয়ত হইয়া পূবালী ব্যাংক লিঃ নারায়ণগঞ্জ শাখায় বন্ধক রাখে। (৬)পরবর্তীতে উক্ত সম্পত্তি ব্যাংকে বন্ধক থাকাবস্থায় উক্ত গফুর মোল্লাগং পর্যায় ক্রমে মৃত্যু বরণ করেন। তৎপরবর্তীতে পূবালী ব্যাংক কর্তৃপক্ষ ব্যাংকের টাকা উদ্ধারের নিমিত্তে যুগ্ম জেলা জজ আদালতে ১১২/৮৬ নং দেঃ মোকদ্দমা দায়ের করেন। (৭)পরবর্তীতে পূবালী ব্যাংক লিঃ উক্ত মোকদ্দমায় রায় ডিক্রী প্রাপ্ত হইয়া সম্পত্তি নিলামে বিক্রয় করার জন্য পত্রিকায় বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করিলে মৌলভী আঃ গফুর মোল্লাগংদের ওয়ারিশগন জানতে পারিয়া ব্যাংক কর্তৃপক্ষের সহিত যোগাযোগ করেন। তৎপরবর্তীতে মৌলভী আঃ গফুর মোল্লাগংদের ওয়ারিশগন, পূবালী ব্যাংক লিঃ কর্তৃপক্ষ এবং আলহাজ¦ মোঃ জয়নাল আবেদীন সাহেবের সহিত আলাপ আলোচনার মাধ্যমে আলহাজ¦ মোঃ জয়নাল আবেদীন সাহেব ব্যাংকের প্রাপ্ত অর্থ পরিশোধ করেন এবং উক্ত মৌলভী আঃ গফুর মোল্লাগংদের ওয়ারিশগন, পূবালী ব্যাংক লিঃ কর্তৃপক্ষ উভয়ের উপস্থিতে বিগত ২৪/০৫/২০০৬ ইং তারিখে ৩৬২০ নং আম-মোক্তার নামা দলিল মূলে তর্কিত সম্পত্তি আলহাজ¦ মোঃ জয়নাল আবেদীন বরাবরে হস্তান্তর করে এাবং সরজমিনে সার্ভেয়ার এর মাধ্যমে মাপঝোপ করিয়া দখল বুঝাইয়া দেয় এবং ব্যাংক কর্তৃপক্ষ আলহাজ¦ মোঃ জয়নাল আবেদীন বরাবরে দায়মুক্তি সনদ প্রদান করে। উক্তরূপে আলহাজ¦ মোঃ জয়নাল আবেদীন তর্কিত সম্পত্তি পূবালী ব্যাংক লিঃ এর নিকট হইতে দীর্ঘ প্রায় ৩০ বৎসর পরে সম্পত্তি উদ্ধার করে ভোগ দখলে বিদ্যমান থাকে। (৮) উল্লেখ্য যে, নারায়ণগঞ্জ ট্রাক মালিক সমিতি নামক প্রতিষ্ঠান উক্ত তর্কিত সম্পত্তি দাবীর পরিপ্রেক্ষিতে আলহাজ¦ মোঃ জয়নাল আবেদীন সহকারী কমিশনার (ভূমি), ফতুল্লা সার্কেলে মিস ৭৬৫/১৩ নং মোকদ্দমা দায়ের করিলে বিজ্ঞ আদালত বিগত ১১/০৮/২০১৫ ইং তারিখে রায় প্রদান করেন। পরবর্তীতে নারায়ণগঞ্জ ট্রাক মালিক সমিতি বিজ্ঞ অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) আদালতে মিস আপীল ২২৭/১৫ নং মোকদ্দমা দায়ের করেন। বিজ্ঞ জেলা রাজস্ব আদালত বিগত ১১/০৯/২০১৮ ইং তারিখে উক্ত মিস আপীল ২২৭/১৫ নং মোকদ্দমাটি না মঞ্জুর পূর্বক মামলাটি নথিজাত করেন। (৯) বিশেষ ভাবে উল্লেখ যে, নারায়ণগঞ্জ ট্রাক মালিক সমিতি অজ্ঞতা বশত এজমালিতে আর,এস ২২২ নং খতিয়ানে কুদরত আলীর নাম লিপি হওয়ায় উক্ত কুদরত আলীর ওয়ারিশগনের নিকট হইতে জনৈক মাসুদ আহম্মেদ তর্কিত সম্পত্তি পূবালী ব্যাংকে বন্ধক থাকা কালীন সময়ে বিগত ২৬/০৫/১৯৯ ইং ক্রয় করে। পরবর্তীতে নারায়ণগঞ্জ মিনিবাস মালিক সমিতি ও নারায়ণগঞ্জ ট্রাক মালিক সমিতি নামক দুটি প্রতিষ্ঠান বিগত ০২/০৭/২০০১ ইং তারিখে অত্র তর্কিত সম্পত্তি খরিদ করে বলিয়া দাবী করে। (১০)নারায়ণগঞ্জ মিনিবাস মালিক সমিতি পরবর্তীতে তাহাদের খরিদকৃত সম্পত্তির মালিকানা সঠিক নহে মর্মে স্বীকার করিয়া বিগত ২৯/০৫/২০০৬ ইং তারিখে উক্ত নারায়ণগঞ্জ মিনিবাস মালিক সমিতির পক্ষে মোঃ নান্নু মিয়া ৩৭৭৭ নং নাদাবী নামা দলিল মূলে আলহাজ¦ মোঃ জয়নাল আবেদীন বরাবরে উক্ত সম্পত্তির নাদাবী নামা দলিল করিয়া দেয়। (১১)বিশেষ ভাবে লক্ষনীয় যে, নারায়ণগঞ্জ ট্রাক মালিক সমিতির লিখিত বক্তবের শেষে বলেন যে, আর,এস পর্চার মন্তব্যের কলামে ভূলে দখল কালাচান লিপি সংশোধন চাহিয়া দেঃ ৭৮১/১৫ নং মোকদ্দমা দায়ের করেন। উক্ত মোকদ্দমায় আলহাজ¦ মোঃ জয়নাল আবেদীন লিখিত জবাব বিজ্ঞ আদালতে দাখিল করিয়াছেন। (১২) তর্কিত আর,এস ২২২ নং খতিয়ানে মোট ১৫৭ শতাংশ সম্পত্তি সম্পর্কে এজমালিতে আলহাজ¦ মোঃ জয়নাল আবেদীন সাহেবের পূর্ববর্তী কালাচানের নাম আর,এস ১২১০ নং দাগে ২৮ শতাংশ ও ১১৭৪ নং দাগের ৯ শতাংশ সম্পত্তিতে মালিকানার কলাম ও মন্তব্যের কলামে লিপি হয়। (১৩) তদরূপ ভাবে আর,এস ২২২ নং খতিয়ানে মোট ১৫৭ শতাংশ সম্পত্তি সম্পর্কে এজমালিতে ট্রাক মালিক সমিতির পূর্ববর্তী কুদ্রত আলী নাম আর,এস ১২৭৩ নং দাগে ১৯ শতাংশ ও ১২৭৭ নং দাগের ৩৬ শতাংশ সম্পত্তিতে মালিকানার কলাম ও মন্তব্যের কলামে লিপি হয়। এবং উক্ত সম্পত্তি কুদ্রত আলী নিজে বিক্রয় করিয়াছেন। উক্ত কুদ্রত আলীর নামে যে মন্তব্যের কলাম লিপি আছে সে সম্পর্কে ট্রাক মালিক সমিতির কোন বক্তব্য পাওয়া যায় নাই। (১৪) কুদ্রত আলী আর,এস পর্চার হিস্যা আনুসারে অর্থাৎ পাচঁ আনা ছয় গন্ডা দুই কড়া দুই ক্রান্তি হিস্্যায় ১৫৭ শতাংশ সম্পত্তি হইতে প্রাপ্ত হয় প্রায় ৫৩ শতাংশ সম্পত্তি। অথচ কুদ্রত আলীর নামে মন্তব্যের কলামে লিপিহয় (১৯+৩৬)=৫৫ শতাংশ সম্পত্তি যাহা তাহার প্রাপ্ত সম্পত্তি হইতে বেশী। এবং উক্ত বেশী সম্পত্তি কুদ্রত আলী নিজে বিক্রয় করেছেন। (১৫)সবশেষে বলাযায় যে, আলহাজ¦ মোঃ জয়নাল আবেদীন সাহেব সঠিক ও শুদ্ধভাবে এবং এসি ল্যান্ড আদালত ও এডিসি আদালত হইতে আদেশ প্রাপ্ত হইয়া নামজারী করিয়া হাল সন পর্যন্ত খাজনা আদায় করিয়া উক্ত তর্কিত সম্পত্তিতে ভোগ দখলে বিদ্যমান আছেন।