অভিযোগকারী ও স্থানীয় মাদবর প্রধানদের গালিগালাজ সহ হুমকি!

রিপোর্ট নারায়ণগঞ্জ ২৪ : নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার ফতুল্লা কাশিপুর ইউনিয়নের আদর্শ নগর নূর মসজিদ সংলগ্ন এলাকায় তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্রের করে আলাল মাতবর (৫৩) নামের এক ব্যাক্তিকে মারধর করে দোকানের সাটার চাপাতি দিয়ে কুপিয়ে দোকানে থাকা নগদ ২৫ হাজার টাকা লুট করার ঘটনায় লিখিত অভিযোগ এবং সংবাদ প্রকাশের পর স্থানীয় এলাকার হালিম মিয়ার ছেলে সাকিল গংরা ৭ অক্টোবর শনিবার দিবাগত রাতে অভিযোগের বাদী সহ স্থানীয় এলাকার মাদবর প্রধানদেরকে গালি গালাজ সহ হুমকি প্রদান করেছে!

রবিবার (৮ সেপ্টম্বর) এ ঘটনায় কাশিপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান সাইফ উল্লাহ বাদল এবং কাশিপুর ৭নং ওয়ার্ডের ইউপি মেম্বার শামীম আহমেদের নিটক এ বিষয়ে একটি অভিযোগ জানিয়েছেন বলে জানায় ভূক্তভোগী আলাল মাদবর সহ অত্র এলাকার মাদবর প্রধানগণ।

অভিযোগকারীরা হলেন, স্থানীয় এলাকার সমাজ প্রধান মোঃ মালেক,রুহুল আমিন, মোঃ মান্নান শেখ, মহিউদ্দিন, মঞ্জু মিয়া, মোঃ ফারুক, শহিদ মিয়া।

অভিযুক্তরা হলেন, স্থানীয় এলাকার হালিম মিয়ার ছেলে সাকিল (২৫), একই এলাকার সাহাবুদ্দিনের ছেলে লালন (২৮), রিপন মিয়ার ছেলে শাকিল (২২), আনোয়ার কসাইয়ের ছেলে রবিন (২৬), সিরাজ মিয়ার ছেলে মাসুম (২৭), ও বাদশা মিয়ার ছেলে লিমন (২৫)।

এলাকার সমাজ প্রধান ও কাশিপুর আদর্শ নগর সামাকিজ কমিটির সদস্যরা জানান, এই শাকিল গংরা এলাকায় সন্ত্রাসের রাজত্ব কায়েম করে থাকেন। তাহের হাতে এলাকাবাসি জিম্মি প্রায়। বিভিন্ন সময়ে এলাকার মানুষদেরকে হয়রানি সহ চাঁদা দাবি করে থাকেন। কেউ এই চাঁদা দিতে অস্বীকৃতি জানালে তাদের উপর মারধর সহ নানা ধরনের অত্যাচার-জুলুম চালানো হয়। এলাকায় মাদক ব্যবসা, নারী কেলেংকারী, নির্মাণ কাজের জন্য জোর পূর্বক মানুষের বাড়িতে ইট,বালু-সিমেন্ট দেয় এই সাকিল গংরা। তাছাড়া আদর্শ নগর এলাকায় বসবাসকারী বিভিন্ন জেলার লোকদেও হয়রানি, ভয়ভীতি সহ নারী গার্মেন্টস কর্মীদেও উত্ত্যক্ত করে এবং জিম্মি করে টাকা পয়সা হানিয়ে নেয়। এলাকাবাসির প্রশ্ন এরা কিশোর গ্যাং নাকি সন্ত্রাসী? সাকিল গংদের এ সমস্ত অপকর্মে বাধা দিতে গেলে চরম মারধর সহ নাজেহার হতে হয় সমাজের মুরুব্বি সহ সমাজ প্রধানদের। বিষয়টি নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রশাসক ও জেলা পুরিশ সুপারের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন তারা।

উল্লেখ্য, গত স্থানীয় এলাকার সস্ত্রাসী সাকিল গংরা গত ৬ সেপ্টেম্বর শুক্রবার সন্ধা ৬টার দিকে ফতুল্লা মডেল থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। বিগত কিছুদিন পূর্বে স্থানীয় এলাকার একটি শালিসি বিচার অমান্য করে দীর্ঘদিন যাবত এলাকায় বিভিন্ন ধরনের অনৈতিক কর্মকান্ড করে আসছিলো। বিচার শালিসির ওই ঘটনার পর থেকে বিভিন্ন সময় তাকে ভয়ভীতি, হুমকি প্রদর্শন ও শালিসে অংশ গ্রহন করতে নিষেদ করেন । এরই ধারাবাহিকতায় গত ০৬/০৯/২০১৯ ইং তারিখ দুপুর আনুমানিক ১২টার দিকে সন্ত্রাসীরা তার দোকানে এসে তার ভাগিনা সোহাগ (২৫) কে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করলে সে তাদেরকে গালিগালাজ করতে নিষেধ করায় তাকে এলোপাধারীভাবে মারধর শুরু করেন এবং দোকানের ভেতরে থাকা নগদ ২৫ হাজার টাকা লুট করে নিয়ে যায়। পরে এ ঘটনায় আলাল মাদবর বাদী হয়ে ফতুল্লা মডেল থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।

এ ঘটনায় ফতুল্লা মডেল থানার উপ-পরিদর্শক (এস,আই) তারিফুর রহমান বর্তমানে লিখিত অভিযোগটি তদন্ত করছেন বলে তিনি জানিয়েছেন।