মেঘনায় ট্রলার ডুবির ঘটনায় নারী আনসার সদদ্যের লাশ উদ্ধার

রিপোর্ট নারায়ণগঞ্জ ২৪ : নারায়ণগঞ্জ জেলার সোনারগাঁ উপজেলার মেঘনা নদীতে কাল বৈশাখী ঝড়ের কবলে পড়ে ট্রলার ডুবির ঘটনায় নিখোঁজ নারী আনসার সদস্য রিতা আক্তারের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে।

সোমবার (১এপ্রিল) সকালে মুন্সিগঞ্জের গজারিয়াতে কোস্টগার্ড সদস্যরা নিহতের মরদেহ উদ্ধার করেন।

এর আগে (৩১মার্চ) রোববার সোনারগাঁ উপজেলা নির্বাচনে ভোটগ্রহণ শেষে উপজেলার চর হোগলার একটি কেন্দ্র থেকে ভোটের সামগ্রী নিয়ে ফেরার পথে মেঘনা নদীতে ঝড়ের কবলে পড়ে একটি ট্রলার ডুবির ঘটনা ঘটে। এ সময় ট্রলারটিতে প্রিসাইডিং অফিসার, পুলিশ ও আনসার সহ প্রায় ২০ জনের একটি দল ছিলো। তারা ব্যালটবাক্সসহ অন্যান্য সামগ্রী নিয়ে ফিরছিলেন। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বন্দও উপজেলার কলাগাছিয়া নৌ- পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ মোস্তাফিজুর রহমান।

এ ঘটনায় ১৬ জনকে জীবিত উদ্ধার করা গেলেও এখনও পর্যন্ত নিখোঁজ ছিলেন ইউনাইটেড কমার্শিয়াল ব্যাংকের মেঘনা শাখার ব্যববস্থাপক বোরহান উদ্দিন, পুলিশের পিএসআই সেলিম এবং নারী আনসার সদস্য রিতা আক্তার।

বন্দর উপজেলার কলাগাছিয়া নৌ-পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ মোস্তাফিজুর রহমান জানান, নির্বাচনী দায়িত্ব শেষে নদী পথে চর কিশোরগঞ্জের বালুর ঘাট থেকে সোনারগাঁয়ের বৈদ্যেরবাজার ঘাটের উদ্দেশ্যে রওনা হয় ট্রলারটি। ট্রলালটি মাঝ নদীতে আসার কিছুক্ষণ পরই ঝড়ের কবলে পড়ে উল্টে যায়। ঘটনার খবর পেয়ে নৌ-পুলিশ, থানা পুলিশ, ফায়ার সার্ভিস ও বিআইডব্লিউটিএর ডুবুরি দল ঘটনাস্থলে গিয়ে উদ্ধার অভিযানে কাজ শুরু করেছে। তবে ওই ট্রলারে কতজন ছিল তা নিশ্চিত করে বলা যাচ্ছে না। ট্রলারটি উল্টে যাওয়ার কারণে অনেক যাত্রী সাঁতরে তীরে উঠতে সক্ষম হয়েছে। তবে নদী উত্তাল থাকায় ব্যালট পেপার ও ব্যালট বাক্সসহ নির্বাচনী সামগ্রী আনসার ও পুলিশের অস্ত্রের খোয়া গেছে কিনা তা এখনও নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

সানারগাঁও থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ মনিরুজ্জামান জানান, ট্রলাল ডুবির ঘটনায় এ পর্যন্ত ১৬ জন তীরে উঠতে সক্ষম হয়েছে। নির্বাচনী সামগ্রী নিয়ে মেঘনা নদীতে ট্রলার উল্টে যাওয়ার ঘটনায় এখনও পর্যন্ত কোষ্টগার্ড ও নৌ-পুলিশের সদস্যরা ১৬ জনকে জীবিত উদ্ধার করতে পেরেছেন। ধারণা করা হচ্ছে এখনও ৩ জন নিখোঁজ রয়েছে। তার মধ্যে একজন পুলিশের সদস্য রয়েছে। অস্ত্র, গুলির ও ব্যালট পেপারসহ নির্বাচনী সামগ্রী কি হয়েছে তা এখনও জানা যায়নি।